আপনিও হয়ে যেতে পারেন কোটিপতি শুধু এই কাজটি করতে হবে

25 বছর পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড (PPF) টাকা বিনিয়োগ করে কোটিপতি হওয়া যায়। কেন্দ্রীয় সরকার বার্ষিক 7.9 শতাংশ হারে সুদ দেয়।

নয়াদিল্লি এখন প্রতিটি মানুষ কোটিপতি হওয়ার আকাঙ্ক্ষা করে। তবে চাকরি থেকে মাসিক আয় দেওয়া সম্ভব নয়।এমন পরিস্থিতিতে উন্নতিকল্পে মাধ্যমে স্বল্প বিনিয়োগে সহায়তা কোটিপতি হওয়া যায়।আপনি স্মার্ট সার্ভিসের সহায়তায় কোটিপতি হতে পারেন।পোস্ট অফিস পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড যারা কোটিপতি হন তাদের কোনো যুক্তি ছাড়াই দীর্ঘ সময়ের জন্য বিনিয়োগ করতে সহায়তা হয়।
কম ঝুঁকি নিয়ে বিনিয়োগ করতে যে কোন পোস্ট অফিসে প্রভিডেন্ট ফান্ড একাউন্ট খোলা যেতে পারে। বর্তমানে ডাকঘর প্রকল্পটি বার্ষিক 7.9 শতাংশ সুদ পায়। কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতিটি ত্রৈমাসিক পিপিএফ এর সুদের হার সংশোধন করে। যারা এতে বিনিয়োগ করেন তারাও তাদের অর্থের উপর থেকে সরকারের সুরক্ষা পান। এর সাহায্যে আপনি কিভাবে একজন উদ্যোক্তা হতে পারেন তা জেনে নেওয়া যাক।

এভাবেই কোটিপতি হয়ে উঠতে পারা যায়
বর্তমানে 7.9 শতাংশ সুদের হার এর ভিত্তিতে 25 বছর এর বিনিয়োগ থেকে 1.2 কোটি টাকা বাড়ানো যেতে পারে।এটি লক্ষনীয় যে আপনি পিপিএফ একাউন্ট এ বছরে 1.5 লাখ টাকার বেশি বিনিয়োগ করতে পারবেন না। এর উপর আপনি বিনিয়োগ সুদ এবং পরিপক্বতার প্রত্যাহার করা পরিমাণের উপর ট্যাক্স ছাড়ের সুবিধা পাবেন গত কয়েক বছর ধরে পিপিএফ এ গড় বার্ষিক সুদের হার পরিমাণ ছিল প্রায় 8 শতাংশ। আমাদের প্রভিডেন্ট ফান্ড একাউন্ট যেকোনো সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংকে খোলা যেতে পারে।

সহজে লোন পেতে সক্ষম হবে
আপনি প্রভিদেন্ট ফান্ড একাউন্ট খোলার মাধ্যমে সহজেই বিভিন্ন ধরনের লোন পেতে পারেন। পিপিএফ একাউন্ট এর সাহায্যে আপনি সহজেই লোন পেতে পারেন। পোস্ট অফিস এর অফিশিয়াল সাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী আপনি আপনার পিপিএফ একাউন্ট খোলার পরের দিন ঠিক একবছর পরে লোন নিতে পারবেন।আপনাকে এটাও লক্ষ্য করতে হবে যে এই যোগ্যতা এখন খোলার দিন থেকে পাঁচ বছরের জন্য উপলব্ধ থাকবে। লোন গ্রহনের জন্য গ্রাহকদের ফর্ম ডি সহ তাদের পাস বুকটি আনতে হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*