কোট-বুট পরা সাহেব অসুর, ভবানীপুরের দে বাড়ির পুজো পা দিল 150 বছরে

অসুর এখানে কোট- বুট পরা ইংরেজ সাহেব। তার মুখের গড়ন, চুলের রং সব সাহেবদের মত। ভবানীপুর হরিশ মুখার্জি লেনের দে বাড়ির দুর্গাপুজোয় এরকমই অসুরের দেখা মেলে।

দেড়শ বছর আগে শুরু হওয়া এই পুজো আজও তার ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। ব্রিটিশ শাসনের পাট চুকে গেছে। কিন্তু এখনো ব্রিটিশ সাহেবের আদলে অসুরের মূর্তি গড়া হয় এখানে। মা দুর্গা সগর্বে অসুর নিধন করে যাচ্ছেন। মাতৃভক্তির সঙ্গে দেশভক্তির প্রতিফলন দেখা যায় এই পুজোয়।

1870 সালে এই পুজো শুরু হয়। তখন এই বাড়িতে একটি অলৌকিক ঘটনা ঘটে। কোন এক মহিলা তার দুই সন্তানকে নিয়ে এই বাড়িতে হঠাৎ করে ঢুকে যায় কিন্তু পরে তার কোন খোঁজ পাওয়া যায় না। এরপর বাড়ির এক গিন্নি স্বপ্ন দেখেন। স্বপ্নে মা দূর্গা থাকে পুজো করার আদেশ দেয়। তারপর থেকেই মহাধুমধামে পুজো শুরু। এবছর দুর্গাপুজো দেড়শ বছর পূর্তি। তাই অন্যান্য বছরের থেকে এ বছরে মজা আমদানি একটু বেশি।

ষষ্ঠীর কলা বউ স্নান, দেবীর বোধন থেকে শুরু করে পুজোর যাবতীয় কাজকর্ম সব কিছুতেই হাত লাগান বাড়ির সদস্যরা। বাড়ির মেয়েরা ই হাতে করে মিষ্টি নাড়ু তৈরি করে। ছেলেরা হাতে হাতে যোগান দেয় এসব কাজে। এখন প্রায় 50 জন সদস্য মিলে এই পুজো মিলেমিশে উদযাপন করেন।