দৈনিক ১০০ টাকা প্রয়োগ করে ২০ টাকা লাখ পান, এই পরিকল্পনাটি খুব লাভজনক

এই যুগে আপনার পরিবারের ইচ্ছা পূরণ করা কঠিন হয়ে পড়ে অনেক সময় আমরা অর্থ সাশ্রয় করি তবে কিছু কারণে ব্যয় হয়। এমনকি সারাদিন কঠোর পরিশ্রম করার পরেও যখন প্রয়োজনের সময় হাতে টাকা নেই তখন খুব দুঃখ হয়। ব্যাংকগুলি স্থায়ী আমানতের (এফডি) সুদও হ্রাস করছে। এমন পরিস্থিতিতে আমরা আপনাকে আজ এমন একটি পরিকল্পনা বলতে যাচ্ছি, যার মাধ্যমে আপনি প্রতিদিন ২০ টাকা বিনিয়োগ করতে এবং ২০ লক্ষ টাকা জমা দিতে পারেন। আসুন জেনে নিই এর জন্য আপনাকে কোথায় এবং কতটা বিনিয়োগ করতে হবে।

আপনি যদি মিউচুয়াল ফান্ড এ থাকেন তবে ১০০ টাকা অর্থাৎ ৩০০০ বা ৩১০০ টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন তবে আপনি কেবলমাত্র ১৫ বারের মধ্যে ২০ লম্বা চক থাবল হতে পারেন। কখনও মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগকারী এক বছর ১৫-১৫ শতাংশ রিটার্ন অবস্থান। আপনি যদি ১৫ বারের জন্য এসিপি প্রতিবেদনের সময় ৩০০০ টাকা বিনিয়োগ করেন এবং প্রতি বছর ১৫% রিটার্ন পান, তবে আপনার ২০,০০০ টাকার পরিমাণ থাকে। পরবর্তী স্লাইডে, আপনি জানেন যে আপনি কী অর্থ উপস্থাপনা করুন।

এই পরিকল্পনায় আপনি প্রায় ৫.৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেন, যখন ১৫% এর রিটার্ন অনুসারে আপনি ১৫ বছরের পরে প্রায় ২০ লক্ষ টাকা পাবেন। এইভাবে আপনি একটি বড় লাভ করতে হবে। আসুন আমাদের জানাবেন কোন এসআইপিতে আপনি ভাল আয় পাবেন।

এখানে বিনিয়োগ লাভজনক হবে

ফ্র্যাঙ্কলিন ইন্ডিয়া প্রাইম ফান্ডে, আপনি বার্ষিক রিটার্ন পাবেন ১৪.৬ শতাংশ, এলএন্ডটি মিডক্যাপ ফান্ডে ১৪.৮ শতাংশ এবং এসবিআই ফোকাসড ইক্যুইটি ফান্ডে প্রায় ১৫.৭ শতাংশ পাবেন। আসুন জেনে নিই কীভাবে এসআইপি কাজ করে।

এসআইপি এইভাবে কাজ করে

আপনি এসআইপি বা সিস্টেমেটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যানে বিনিয়োগ করে যৌগিক সুবিধাটিও নিতে পারেন, অর্থাৎ প্রথম মাসের আপনার লাভ আপনার পরবর্তী মাসের প্রধানের সাথে যুক্ত হয়, যা আপনার বিনিয়োগ এবং আপনার লাভও বৃদ্ধি করে। এসআইপিতে যত বেশি বিনিয়োগ করবেন তত বেশি সুবিধা পাবেন। সুতরাং দীর্ঘ সময় ধরে এসআইপি-র মাধ্যমে বিনিয়োগ করা আপনার সম্পদ জমে উঠতে সহায়তা করে।

এসআইপি নিয়মিত বিনিয়োগের একটি সহজ এবং নির্ভরযোগ্য উপায়, যার অধীনে আপনি প্রতি মাসে ৫০০ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারেন। মানে আপনি নিজের মাসিক ব্যয়ের কোনও অতিরিক্ত বোঝা ছাড়াই আপনার স্বপ্নগুলি পূরণ করতে পারেন। এমনকি বিনিয়োগের পরিমাণ কম হলেও, এসআইপি হ’ল দীর্ঘমেয়াদে ধীরে ধীরে সংগ্রহ করার সহজ ব্যবস্থা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*