মা দুর্গার সোনার সাজে কলকাতাকে টেক্কা দিল বর্ধমান, মণ্ডপে জোরদার নিরাপত্তা ব্যবস্থা

কলকাতায় সন্তোষ মিত্র স্কয়ারের দূর্গা প্রতিমা প্রায় 50 কেজি সোনায় মোড়া, অন্যদিকে বর্ধমানের দুর্গা প্রতিমা 220 কেজির সোনা ও হীরের গয়না পরে সেজেছে। হ্যাঁ আপনি ঠিকই শুনেছেন, কলকাতাকে হারিয়ে মা দুর্গার অলংকারের দিক দিয়ে এবার শ্রেষ্ঠত্বের আসন পাচ্ছে বর্ধমান জেলার একটি ক্লাবের পূজো। আসুন জানি সেই পূজার কথা।

আমরা বলছি বর্ধমানের সবুজ সংঘ ক্লাবের পুজোর কথা। এই পুজো এবার থিম হিসেবে ‘একটুকরো লন্ডন’ তুলে ধরেছে। কিন্তু এর মূল চমক অন্যকোথাও এর সেই চমক হল দেবদেবীদের জন্য শোনা ও হীরের তৈরি গয়না। সাধারণত কলকাতাতেই শোনা যায় বা দেখা যায় যে দেব-দেবীরা সোনার গয়না পরে প্যান্ডেলের শোভা পাচ্ছে। কিন্তু এবার সেই প্রথা ভেঙে দিল জেলা বর্ধমান। বর্ধমানের এই পুজোতে একটি জুয়েলারি কোম্পানি সোনা এবং হীরের গয়না দিচ্ছে প্রতিমার জন্য। সর্বমোট 220 কেজি ওজনের সত্যিকারের সোনা এবং হীরার গয়না দিয়েছেন তারা। ‌ এতে ধারণা করা হচ্ছে যে প্রায় 81 কোটি টাকার গয়না থাকছে ওই মণ্ডপে।

পাশ্চাত্য স্থাপত্যকলার রীতি অনুসরণ করে এই পুজো মন্ডপ তৈরি করা হয়েছে। দুর্গা প্রতিমা ও অন্যান্য সকল দেব-দেবীদের এই বিপুল পরিমাণ অতি মূল্যবান অলঙ্কার সামগ্রীর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য মোতায়েন করা হয়েছে সরকারি আধা সরকারি এবং বেসরকারি নিরাপত্তা বাহিনী। এর সাথে থাকছে 35 থেকে 40 টি সিসিটিভি ক্যামেরা, 24 ঘন্টার কন্ট্রোল রুম, এবং বড় বড় 52 ইঞ্চির এলসিডি টিভি মনিটর। সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। জানা যাচ্ছে এই মন্ডপের নিরাপত্তা ব্যবস্থার জন্য আড়াই লক্ষাধিক টাকা ব্যয় করা হয়েছে।

দুর্গা প্রতিমার এই সোনার সাজ দেখতে ষষ্ঠীর দিন থেকেই মণ্ডপে ভিড় উপচে পড়ছে। আয়োজকরা জানিয়েছেন প্রতিবছরই তাদের পূজামণ্ডপে শহরের অন্যান্য পুজোর থেকে বেশি ভিড় হয়। এ বছরে সোনার সাজ দেখতে ভিড় আরো বেড়েছে। কিন্তু অত্যন্ত জোরদার নিরাপত্তা ব্যবস্থার কারণে তারা অনেকটাই নিশ্চিন্ত।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*