মিউচুয়াল ফান্ড: এখন কমিশনগুলি বিনিয়োগের সময় প্রদান করতে হবে না, সুবিধা গুলি শিখুন

নয়াদিল্লি শেয়ারবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ভারতের সিকিওরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড (এসইবিআই) মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগের বিষয়ে বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন করেছে। এই সিদ্ধান্তগুলি থেকে বিনিয়োগকারীরা প্রচুর উপকৃত হবে। এই সিদ্ধান্তগুলির আওতায় বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে আর আপফ্রন্ট কমিশন চার্জ করা যাবে না। এর অর্থ হ’ল বিনিয়োগকারীরা যে পরিমাণ অর্থ বিনিয়োগ করবেন এখন সেই পরিমাণের ইউনিটকে বরাদ্দ দেওয়া হবে। এগুলি ছাড়াও, শুরুতে সর্বাধিক ব্যয় কাটা এবং এই জাতীয় ব্যয়ের সীমা নির্ধারণের মতো পদক্ষেপগুলিও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

ব্যয় অনুপাতের ক্ষেত্রে ভারত ভাল

বিশেষজ্ঞদের মতে ভারতে ফি ও ব্যয়ের স্তর এখন উন্নত হয়েছে এবং একটি পর্যায়ে চলে এসেছে। তবে, ২০১৭ সালে এটি গড়ের নিচে ছিল। একটি তথ্য অনুসারে, প্রথম ব্যয়ের অনুপাতের দিক থেকে ভারত অন্যতম ব্যয়বহুল দেশ ছিল। যাইহোক, আগাম লোড নিষিদ্ধকরণ এবং মোট ব্যয়ের অনুপাত (টিআর) হ্রাস করার সেবির সিদ্ধান্তের সাথে ভারতের অবস্থান উন্নত হয়েছে।

মিউচুয়াল ফান্ডের এএমইউ রেজিস্ট্রেশন করেছে

দেশে বর্তমানে ৪২ টি মিউচুয়াল ফান্ড সংস্থা রয়েছে। এই সমস্তের সম্পদ আন্ডার ম্যানেজমেন্ট (এএমইউ) আগস্ট ২০১৯ সালে প্রায় ৪% বৃদ্ধি পেয়ে ২৫.৪৭ লক্ষ কোটি টাকা হয়েছে। এর আগে মাসে অর্থাৎ জুলাই ২০১৯ সালে এটি ছিল ২৪.৫৩ লক্ষ কোটি টাকা। চলতি অর্থবছরের প্রথম ৫ মাসে মিউচুয়াল ফান্ডের এএমইউ বেড়েছে প্রায় ১.৬৮ লক্ষ কোটি টাকা। বিশেষজ্ঞদের মতে, দেশের শেয়ারবাজার হ্রাস পাচ্ছে। তবে তবুও, বিনিয়োগকারীরা তাদের এসআইপি চালাচ্ছেন। এ থেকে বোঝা যায় যে দেশে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সচেতনতা রয়েছে। এটি একটি ভাল জিনিস

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*